৬৫ বছর বয়সে স্বামীর বন্ধুকে বিয়ে!

৬৭ বছর বয়সেও প্রেমে পড়া যায়? প্রেমের পর আবার বিবাহ বন্ধনেও কি আবদ্ধ হওয়া যায়? এমনই এক প্রবীণ মিষ্টি ভালবাসার সাক্ষী হয়েছে ভারতের কেরালার একটি বৃদ্ধাশ্রম। অনেক চাপা হতাশা বুকে নিয়ে বৃদ্ধাশ্রমে ঠাঁই নেন বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা। সেখানে নিজেদের মধ্যেই তারা গড়ে তুলে এক অন্য পরিবার।

সুদিন ও দুর্দিনে পাশে দাঁড়ান একে অ’পরের। তেমনটাই হয়েছিল ষাটের কোঠা পেরিয়ে যাওয়া লক্ষ্মী আমল এবং কোচানিয়ান মেননের সঙ্গেও। স্বামীর মৃ’ত্যুর পর বৃদ্ধাশ্রমে চলে আসেন লক্ষ্মীদেবী। কিন্তু দু’জন ভাবতেই পারেননি, এই বয়সে এসে প্রেমে পড়বেন। নতুন করে সংসার পাতবেন।

চোখে-মুখে বয়সের ছাপ পড়লেও মনের প্রেম কমেনি। আর সেই ভালবাসাকে স্বীকৃতি দিতে বৃদ্ধাশ্রমেই বিয়ের পিঁড়িতে বসল এই যুগল। মজার বিষয় হল, এই কোচানিয়ানই এককালে লক্ষ্মীদেবীর স্বামীর সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। মাঝখানে অনেকগুলো বছর কে’টে গেছে।

ত্রিশূরের সরকার চালিত বৃদ্ধাশ্রমে আবার সেই হারিয়ে ফেলা বন্ধুস্থানীয় মানুষটির সঙ্গে দেখা হয় তার। আর ৬৫ বছর বয়সে এসে তাকেই মন দিয়ে বসেন লক্ষ্মীদেবী। অ’গ্নিকে সাক্ষী রেখেই বাঁধলেন গাঁটছড়া। মেহেন্দি থেকে সংগীত-সব আচার অনুষ্ঠানই পালিত হল।

আয়োজন করলেন বৃদ্ধাশ্রমের অন্যান্যরাই। আর সেই ছবিই এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। নবদম্পতিকে বিয়ের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রশংসায় ভরিয়েছেন নেটিজেনরা। অনেকেই লিখেছেন, ‘আপনারাই ভাল থাকার অনুপ্রেরণা।’