৫৫ দিনে ফল প্রকাশে খুশি প্রধানমন্ত্রী

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার মাত্র ৫৫ দিনের মাথায় ফল প্রকাশ করায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এবার ৫৫ দিনে এইচএসসির ফল দিতে পারায় আমি খুব খুশি। এ জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান।

বুধবার সকালে গণভবনে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ও ফলের পরিসংখ্যান হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর হাতে প্রতিটি শিক্ষা বোর্ডের প্রধানদের সঙ্গে নিয়ে ফল তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যেকোনো দেশের সমাজের উন্নয়নে শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। দেশকে উন্নত ও দারিদ্র্যমুক্ত করতে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই।

পরীক্ষার ফল সম্পর্কে তিনি বলেন, ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ পাসের হার এটি ভালো। তিনি বলেন, আমরা এখন ৬০ দিনে ফল দিতে পারছি। এবার ৫৫ দিনে এইচএসসির ফল প্রকাশ হলো। এ জন্য আমি খুব খুশি। প্রতিটি পরীক্ষার ফল সময়মতো প্রকাশ করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

কৃতকার্য শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা পাস করেছ তাদের ধন্যবাদ। আর যারা ফেল করেছ, তাদের আগামী দিনে আরও ভালো করে পড়তে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ পাসের হারকে ‘যথেষ্ট গ্রহণযোগ্য ও ভালো’ ফলাফল হিসেবে বর্ণনা করেন।

চলতি বছর ১ এপ্রিল থেকে ২৩ মে দেশের দুই হাজার ৫৬০টি কেন্দ্রে এইচএসসি ও সমমানের লিখিত ও ব্যবহারিক পরীক্ষা চলে।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী জানান, দশ শিক্ষা বোর্ডে এবার সব মিলিয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৩৬ হাজার ৬২৯ জন। তাদের মধ্যে পাস করেছে ৯ লাখ ৮৮ হাজার ১৭২ জন।

এর মধ্যে এইচএসসিতে আট সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে ৭১ দশমিক ৮৫ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪১ হাজার ৮০৭ জন। মাদ্রাসা বোর্ডে এবার পাস করেছে ৮৮ দশমিক ৫৬ শতাংশ শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ২ হাজার ২৪৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।

আর কারিগরি ও ভোকেশনাল বোর্ডে পাসের হার এবার ৮২ দশমিক ৬২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ২৩৬ জন।

এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ৪১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনো শিক্ষার্থী পাস করতে পারেনি। আর ৯০৯টি প্রতিষ্ঠান থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সব শিক্ষার্থীই পাস করেছে। ফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রমুখ।