সংবাদ পাঠিকার সঙ্গে মডেলের পরকীয়া, স্ত্রীকে মারধর(ভিডিও)

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জান্নাতুল ফেরদৌস নামে এক নারীর পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। যেখানে তিনি তার স্বামীর তার ওপর অত্যাচারের বর্ণনা দিয়েছেন। তিনি তখন দেখিয়েছেন কিভাবে শারীরিক অত্যাচার করা হয় তার ওপর।

জানা যায়, তার স্বামী মডেল ও অভিনেতা। যার নাম নাম আবু নাসের ইউসুফ। তিনি ‘তুমি বরুণা হলে’ গানটির মডেল হয়ে আলোচনায় এসেছিলেন। এছাড়া তাকে ধারাবাহিক নাটকেও দেখা গেছে। তার সঙ্গে বেসরকারী চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা ঈশিকা আজিজের সম্পর্ক রয়েছে বলে ওই নারী দাবি করেন।

জান্নাতুল ফেরদৌস- আবু নাসের ইউসুফের সংসারে রয়েছে কন্যাসন্তান প্রমিতা ইউসুফ ও ছেলেসন্তান জাজলান নুর ইউসুফ।স্ত্রী ফেসবুক পোস্টে ঈশিকা ও মডেল ইউসুফকে নিয়ে বলেন,‘যারা যারা আমাকে ইনবক্সে বিভিন্ন প্রশ্ন করছেন তাদের উদ্দেশ্যে দিলাম। ধৈর্য্যৈর সীমা শেষ।

একটা নেশাখোর, চরিত্রহীন, লোভী, বেঈমান স্বামীর সাথে এত কষ্ট সহ্য করেও ২০১৩ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলাম শুধুমাত্র বাচ্চাদের মুখের দিকে তাকিয়ে। আমার আর আমার বাচ্চাদের প্রতি কখনও কোন দায়িত্বও পালন করেনি। নিজে চাকরি করে সংসার চালিয়েছি।

পাশাপাশি সংসারের কথা চিন্তা করে শুধু এস এস সি পাশ করা স্বামীকে প্রায় লাখ খানেক টাকার বেতনের চাকরি ও যোগার করে দিয়েছি। তারপরও সেই টাকা খরচ করেছে উনি উনার বিভিন্ন গার্লফ্রেন্ডস দের সাথে। কখনও কোন প্রকার স্টাটাসও দেইনি। কারণ চেয়েছিলাম একটা সুস্থ সংসার। বিনিময়ে স্বামীর কাছ থেকে পেয়েছি এইগুলো। এটাই বড় অপরাধ ছিল আমার।’

ওই নারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান, তার স্বামী সংবাদ পাঠিকা ঈশিকা আজিজের সঙ্গে পরকীয়ায় লিপ্ত। যার কারণে আজ একটি সাজানো সংসার ধংসের পথে! সেই কারনে স্বামী তার স্ত্রী ও সন্তানকে মারধোর করেছেন, বাসায় ব্যাপক ভাংচুর করেছেন।

ঈশিকা আজিজের সঙ্গে সেই নারীর স্বামীর কিছু ঘনিষ্ট ছবি আপলোড করেছেন তিনি। জবাবে ঈশিকা বলেছেন এগুলো এডিট করা ছবি, তিনি আইনের আশ্রয় নেবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেন,‘এখন তো কিছু পাওয়ার জন্য সাহায্য মানে নিজেকেই ভাইরাল করা।

মিডিয়ার এক নেশাগ্রস্থ এর স্ত্রী তার নেশাগ্রস্থ স্বামীর সাথে আমাকে জড়িয়ে ছবি কাটপিস করেছে। এসব ছবি এত সহজে Photo edit এর যুগেই পাওয়া যায়। আমিও অবশ্যই আইনের আশ্রয় নিচ্ছি। আপনাদের অসভ্যতা, বেয়াদবি সহ্য করা আমাদের দুর্বলতা নয়।’সূত্র:বাংলা ইনসাইডার