শ্রমিকদের সকল যৌক্তিক দাবি আদায়ে রাজপথের পাশাপাশি জাতীয় সংসদেও সোচ্চার ভূমিকা রাখবে

জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, সরকারি শ্রমিক সংগঠনগুলো তাদের ন্যায্য অধিকার পেয়ে থাকে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা ন্যায্য অধিকারের চেয়েও বেশি পেয়ে থাকে। কিন্তু দেশের ৯৯ ভাগ শ্রমিকই তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত।

বুধবার মহান মে দিবস উপলক্ষে রাজধানীর মিরপুর দারুস সালাম থানা সংলগ্ন বর্ধনবাড়ি বটতলা মোড়ে জাতীয় মটর শ্রমিক পার্টি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্ত্যব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জিএম কাদের বলেন, মে দিবস আসলেই আমরা শ্রমিকদের দাবি আদায় নিয়ে রাজপথে নেমে থাকি। শ্রমিকরা সারাবছরই অবহেলিত ও প্রবঞ্চনার শিকার হন। প্রচলিত অনেক আইন আছে যেগুলো শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য। কিন্তু দুঃখজনক সত্য হলো এই আইনগুলো শ্রমিকদের স্বার্থে কম ব্যবহৃত হচ্ছে। 

তিনি আরও বলেন, জাতীয় পার্টি শ্রমবান্ধব সরকার ছিল। শ্রমিকদের সকল যৌক্তিক দাবি আদায়ে রাজপথের পাশাপাশি জাতীয় সংসদেও সোচ্চার ভূমিকা রাখবে জাতীয় পার্টি।

মটর শ্রমিক পার্টির সভাপতি ও জাতীয় পার্টির যুগ্ম-মহাসচিব মোস্তাকুর রহমান মোস্তাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, জাতীয় পার্টির যুগ্মমহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয়, মেহেদী হাসান শিপন, ওয়াহিদুজ্জামান রানা প্রমুখ।

সমাবেশে সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেন, বর্তমান সরকার শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে। জাতীয় পার্টিও সরকারের সাথে থেকে শ্রমিকদের দাবি আদায়ে আগেও ভূমিকা রেখেছে, ভবিষতেও সংসদে অবহেলিত শ্রমিকদের পক্ষে কথা বলবে।

পার্টির যুগ্ম-মহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয় বলেন, শ্রমিকদের ঘাম নিচে পড়ার আগেই তাদের পারিশ্রমিক দেয়ার কথা থাকলেও শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য মূ্ল্য পাচ্ছে না। শ্রমিকরা কোনো দলের নয়। তাদের স্বার্থরক্ষায় সকলকেই মাঠে নামতে হতে।