ফেসবুক: চাকরি পেতে গুছিয়ে রাখুন প্রোফাইল

চাকরির জন্য যারা আবেদন করা শুরু করেছেন একটি বিশেষ বিষয়ে তাদের গুরুত্ব দেয়া জরুরি। সময়ের প্রেক্ষিতে বিষয়টির গুরুত্ব দিন দিন বেড়েই চলেছে।

যারা চাকরির জন্য একটি আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করেছেন, তাদেরকে আরেকটি বিষয়েও ভাবতে হবে। আর সেটি হলো চাকরিপ্রার্থীর ফেসবুক প্রোফাইল। একটি গোছানো ফেসবুক প্রোফাইল চাকরি পাওয়ার পথ অনেকটাই সুগম করে দিতে পারে।

সম্প্রতি, ক্যারিয়ার বিষয়ক বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইট পর্যালোচনা করে দেখা যায়, অধিকাংশ নিয়োগকর্তা চাকরির আবেদনকারীর ফেসবুক প্রোফাইলে আবেদনকারী সম্পর্কে ধারণা নিয়ে থাকেন। গোছানো ফেসবুক প্রোফাইল আপনার সম্পর্কে নিয়োগকর্তার মনে একটি ইতিবাচক ধারণা তৈরি করতে পারে। ক্যারিয়ার বিশেষজ্ঞরা বেশ কয়েকটি পরামর্শ দেন কিভাবে ফেসবুক প্রোফাইল গোছাতে হবে।

অসামাজিক বিষয়সমূহ পোস্ট না করা: কারও কারও মদ্যপানের বদ অভ্যাস রয়েছে। এসব নিয়ে ফেসবুকে ছবি দিয়ে নিজেকে ছোট করবেন না। আবার আপনি হয়তো পার্টি করতে বেশী পছন্দ করেন। বন্ধু-বান্ধবের সাথে আনন্দের ছবি ফেসবুকে অবশ্যই দিবেন তবে এমন কোন ছবি দিবেন না যাতে আপনার সম্পর্কে বাজে ধারণা তৈরি হয়।

বিতর্কিত বিষয়সমূহ এড়িয়ে চলা: বিতর্কিত বিষয়সমূহ যেমন: ধর্মীয় উগ্রতা প্রচার, রাজনৈতিক সহিংসতা ছড়ানো, সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ছড়ানো – এসব বিষয় নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করা এড়িয়ে চলুন।

অনর্থক আত্মপ্রচার থেকে সতর্ক থাকা: ফেসবুক যেন অনর্থক আত্মপ্রচারের জায়গা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা। আপনি কি খাচ্ছেন, কখন ঘুমচ্ছেন এসব অনর্থক বিষয় নিয়ে ঘণ্টায় ঘণ্টায় পোস্ট দেয়া মানুষর মনে বিরক্তি প্রকাশ করে। এসব এড়িয়ে চলুন।

নিজের দক্ষতা ও অর্জন তুলে ধরা: আপনার ভাল কোন গুণ যেমন: আপনি গাইতে পারেন বা ভাল লিখতে পারেন, ভাল বক্তব্য দিতে পারেন কিংবা অভিনয় করতে পারেন – এসব বিষয় আপনি ফেসবুকে তুলে ধরতে পারেন। আবার আপনি কোন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সম্মাননা অর্জন করলেন সেটিও ফেসবুকে শেয়ার করতে পারেন।

মূলকথা, ফেসবুক এমন একটি প্লাটফর্ম যা ব্যবহার করে আপনি আপনার সম্পর্কে সুধারণাও তৈরি করতে পারেন আবার বাজে ধারনাও তৈরি করতে পারেন। আর চাকরি প্রার্থী হলে একটি গোছানো ফেসবুক প্রোফাইলের ব্যাপারে মনোযোগী হওয়া জরুরি।