রোহিঙ্গাদের সমাবেশ প্রসঙ্গে যা বললেন আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল

রোহিঙ্গারা সম্প্রতি যে সমাবেশ করেছে সে সমাবেশের বিষয়ে তারা (রাষ্ট্রদূত) জানতে চেয়েছিল। আমরা বলেছি, তাদের বেঁচে থাকার যে আকুতি তারা এই সমাবেশের মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে জানানোর চেষ্টা করেছে। আমরাও মনে করি তারা যথার্থই করেছে। আমরা এই সমাবেশকে নেগেটিভলি নিচ্ছি কিনা সে বিষয়েও তারা আমাদেরকে প্রশ্ন করেছে। আমরা বলেছি, না, আমরা নেগেটিভ চিন্তা করার কোন কারণ নাই। তারা বেঁচে থাকার জন্য যেটা বলেছে সেটা যৌক্তিক।

বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি দেখা গেছে, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রায়ই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হচ্ছে। তারা বিভিন্ন মাদকদ্রব্য পাচার ও খুন করছে। তারা এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আওয়ামী লীগের এক নেতাকেও হত্যা করেছে। এজন্য তাদের নজরদারিতে রাখতে ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়াসহ বিভিন্ন পয়েন্টে ওয়াচ টাওয়ার স্থাপন করা হবে।

তিনি বলেন, আমি দুই দেশের প্রতিনিধিকে বলেছি, রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত যেতে আমরাও কাজ করছি আপনারাও কাজ করছেন। তবে বারবার মায়ানমারকে চাপ দেওয়ার পরও তারা তাদের নাগরিককে ফেরত নিচ্ছে না। প্রতিটি মুহূর্তেই তাদের ফেরত নেওয়ার ব্যাপারে প্রতিকূল অবস্থা সৃষ্টি হচ্ছে। তাদের লাইফ সিকিউরিটি এবং অন্যান্য নিরাপত্তা পাবে না ভেবে রোহিঙ্গা শরণার্থীরাও যেতে চাচ্ছে না। এটা নিয়ে আমরা তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, তার কাটার বিষয়ে তারা প্রশ্ন করলে আমরা বলেছি এ বিষয়ে আমাদের প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, তারা (রাষ্ট্রদূত) এ বিষয়ে আমাকে প্রশ্ন করেছে, এটা তখন জেলখানা হবে কি না? এ ব্যাপারে আমরা বলেছি, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে শরণার্থীদের বিষয়ে তাদের নিরাপত্তার জন্য এ ধরনের কাটা তারের ব্যবস্থা রয়েছে।

আমরা বলেছি, রোহিঙ্গারা যেন এখান থেকে সারাদেশে ছড়িয়ে যেতে না পারে সেজন্য আমরা এ ব্যবস্থা করছি, বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।