যৌনশক্তি বাড়াতে মধুর উপকারিতা জেনে নিন

যৌনশক্তি বাড়াতে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পন্ন ঔষধি কৌশল এবং মনোবৈজ্ঞানিক চিকিৎসা এখন প্রায় সেকেলে হয়ে পড়েছে। আজকাল যৌনশক্তি বাড়াতে প্রাকৃতিক কামোদ্দীপক বা যৌনশক্তি বর্ধক খাদ্যই অনেক বেশি কার্যকরী হিসেবে বিবেচিত হয়। তাই বিবাহিত জীবনে যৌনতায় ফিট থাকতে হলে আপনাকে দৈনন্দিন খাবার দাবারের প্রতি পূর্ণ মনোযোগী হতে হবে। কারণ সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালো বোঝাপড়া থাকার পাশাপাশি দরকার স্বাস্থ্যকর যৌন জীবন।

অথচ প্রায়ই দেখা যায় যৌন সমস্যার কারনে সংসারে অশান্তি হয়, এমনকি বিচ্ছেদ পর্যন্ত হয়। তাই আগে থেকে সতর্ক থাকলেও এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি নাও হতে পারেন আপনি। আপনার যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য কোন প্রকার ঔষধের প্রয়োজন নেই, তার জন্য দৈনন্দিন পুষ্টিকর খাবার দাবারই যথেষ্ট। আপনার খাবার মেনু তে নিয়মিত দুধ, ডিম এবং মধু রাখুন আর নিয়মতান্ত্রিক জীবন যাপন করুন, তাহলে যৌন দুর্বলতায় ভুগবেন না।মধুর স্বাস্থ্যগত উপকারিতা সবারই জানা।

এটি উচ্চ ঔষধিগুণ সম্পন্ন একটি ভেষজ তরল। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, মধু স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। সর্দি-কাশি, রূপচর্চা, হৃদরোগ থেকে শুরু করে ওজন কমানো পর্যন্ত প্রায় সব কিছুতেই মধু অত্যন্ত কার্যকরী। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না, যৌন উদ্দীপনা বৃদ্ধিতেও মধু অত্যন্ত কার্যকরী।ব্রিটেনের ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের মতে, নারী-পুরুষ উভয়েরই যৌন উদ্দীপনা বৃদ্ধি করতে চাকভাঙা মধু বিশেষভাবে কার্যকর। ব্রিটিশ গবেষকদের দাবি, পুরুষের টেস্টোস্টেরন হরমোনের ক্ষরণ বৃদ্ধিতে মধু খুবই কার্যকরী।

তারা জানান, মধুর অন্যতম উপাদান ‘বোরন’ নারীদের শরীরে ইস্ট্রোজেন হরমোনের ক্ষরণেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, মধুর একাধিক ঔষধিগুণ টেস্টোস্টেরন, ইস্ট্রোজেন হরমোনের ক্ষরণ বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে রক্ত সঞ্চালনের গতি বাড়িয়ে তোলে। সেইসঙ্গে মানবদেহে স্নায়ুর উদ্দীপনা বৃদ্ধিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে মধু।

ব্রিটিশ গবেষকদের দাবি, মাত্র দুই চামচ মধু যৌন জীবনে জোয়ার আনতে সক্ষম। তাদের মতে, সুস্থ-স্বাভাবিক, দীর্ঘ যৌন জীবন পেতে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া যুক্ত নানা ওষুধ সেবনের চেয়ে প্রতিদিন মাত্র দুই চামচ মধুই যথেষ্ট। সূত্র :দ্য ডেইলি মেইল।