বিআরটিসি বাস হরতাল ধর্মঘটে সেবা দেবে

‘বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন’ বা বিআরটিসি আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এতে হরতাল, পরিবহন ধর্মঘট ও ইজতেমাসহ দুর্যোগপূর্ণ পরিবেশে বিশেষ সড়ক পরিবহন সেবা দেয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

এছাড়াও আইনে বিআরটিসি চালকদের সরকারি কর্মচারী হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে। আজ সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিআরটিসি আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, বিআরটিসি পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ সরকারের পক্ষ থেকে ১২ জন ও বেসরাকারি ১২ জন মিলিয়ে মোট ২৪ জনের পরিচালনা বোর্ড গঠনের কথা বলা হয়েছে আইনে। এদের মধ্যে তিনজন বেসরকারি নারী প্রতিনিধি রাখার বাধ্যবাধকতা রাখা হয়েছে। আর বিআরটিসি চালকদের সরকারি কর্মচারী হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে আইনটিতে।

তিনি যোগ করেন, ১৯৬১ সালের তৈরি ‘বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন অধ্যাদেশ’ আইনে পরিণত করা হয়েছে। পরিবর্তিত আইন অনুযায়ী হরতাল, ইজতেমা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও পরিবহন ধর্মঘটের মতো পরিস্থিতিতে বিআরটিসির বিশেষ সেবা দেয়ার নির্দেশ বাধ্যতামূলক করার কথা বলা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, বিআরটিসির শেয়ার মূলধন ছয় কোটি থেকে বাড়িয়ে এক হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানের শেয়ার থাকবে ৫১ শতাংশ আর ৪৯ শতাংশ শেয়ার থাকবে বেসরকারি। এই মূলধন বার্ষিক সাধারণ সভার মাধ্যমে অনুমোদনের বিধান রাখা হয়েছে।