বর্তমান সময় আলোচনার জন্য নয়, প্রতিরোধের: রুহানি

ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, তিনি আলোচনা করতে ও কূটনীতিকে ভালোবাসেন। কিন্তু সেটি বর্তমান পরিস্থিতিতে নয়।

সোমবার বার্তা সংস্থা আইআরএনএর বরাতে রয়টার্সের খবরে এ তথ্য বলা হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি আলোচনার জন্য উপযুক্ত না। সে ক্ষেত্রে প্রতিরোধই হচ্ছে আমাদের একমাত্র পছন্দ।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন স্বার্থের বিরুদ্ধে ইরান কিছু করতে চাইলে ভয়াবহ শক্তির মুখোমুখি হতে হবে তাদের। রোববার এক টুইটে যুদ্ধ চাইলে সেটিই ইরানের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি হবে বলে হুশিয়ার করেছেন ট্রাম্প।

একই দিন সৌদি আরবও ইরানকে হুশিয়ার করেছিল। ইরান যুদ্ধ চাইলে তারা সর্বশক্তি দিয়ে জবাব দিতে প্রস্তুত এবং যুদ্ধ এড়ানো ইরানের ওপরই নির্ভর করছে বলে জানিয়েছিল তারা।

গত সপ্তাহে সৌদি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা ও রোববার বাগদাদের গ্রিন জোনে রকেট নিক্ষেপের প্রতিক্রিয়ায় এসব হুশিয়ারি এলো। বাগদাদের গ্রিন জোনে নিক্ষিপ্ত রকেটটি মার্কিন দূতাবাসের কাছে বিস্ফোরিত হয়।

ইরাকের রাজধানী বাগদাদের অতিসুরক্ষিত গ্রিন জোনে রোববার একটি রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। যেখানে হামলাটি হয়েছে, সেখানে সরকারি ভবন ও মার্কিন মিশনসহ বিভিন্ন দেশের দূতাবাস রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, রোববার রাতে মধ্য বাগদাদ থেকে একটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। বাগদাদভিত্তিক দুটি কূটনৈতিক সূত্রও বিস্ফোরণ হওয়ার কথা জানিয়েছে।

সামরিক বাহিনীর সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গ্রিন জোনের মাঝে একটি ক্যাচুশা রকেট আঘাত হেনেছে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। পরে বিস্তারিত জানানো হবে বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

ক্যাচুশা রকেট লাঞ্চার খুবই সস্তা ও সুলভ। প্রচলিত বড় কামানের চেয়ে এটি দ্রুতগতিতে লক্ষ্যবস্তুতে বিস্ফোরক নিক্ষেপ করতে পারে। কিন্তু হামলা খুব বেশি একটা নির্ভুল হয় না।

চলতি সপ্তাহে রাজধানী বাগদাদের মার্কিন দূতাবাস ও ইরবিল কনস্যুলেট থেকে অগুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের সরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।