পুরুষ সেজে কিশোরীকে বারবার ধ’র্ষণ! আটকের পর অবাক পুলিশ

এক কিশোরী পুলিশের কাছে অ’ভিযোগ জানায়, তাকে ধ’র্ষণ করেছে ৩২ বছর বয়সী এক যুবক। ওই যুবকের বি’রুদ্ধে একাধিকবার শারীরিক নি’র্যাতনের অ’ভিযোগ জানায় ওই কিশোরী। কিশোরীর অ’ভিযোগের ভিত্তিতে অ’ভিযুক্তকে গ্রে’ফতারও করে পুলিশ।

এরপরই স্ত’ম্ভিত হয়ে যায় আইনশৃ’ঙ্খলা র’ক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। কারণ, কিশোরীর ওপর শারীরিক নি’র্যাতন চালানো অ’ভিযুক্ত কোনও যুবক নয়, বরং পুরুষের ছ’দ্মবেশে থাকা এক তরুণী! চমকে দেওয়ার মতো এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের অ’ন্ধপ্রদেশের প্রকাশম জেলায়।

অ’ভিযুক্ত তরুণীর নাম সুমলতা। সুমলতাই পুরুষ সেজে সাই রমেশ রেড্ডি নামে ওই কিশোরীর সঙ্গে আলাপ জমায়। পরে সুযোগ বুঝে ধ’র্ষণ করে ওই কিশোরীকে। কিন্তু ওই যুবতী কিশোরীটিকে ধ’র্ষণ করল কী করে? স্থানীয় পুলিশের ডেপুটি কমিশনার বি রবি চন্দ্র জানান,

পুরুষের ছ’দ্মবেশে থাকা সুমলতা সে’ক্স ট’য়ের সাহায্যে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করে ওই কিশোরীকে ধ’র্ষণ করেছে। পুলিশ জানায়, সুমলতা পুরুষের কণ্ঠস্বরে কথা বলায় পটু। তাই সহজেই পুরুষের ছ’দ্মবেশে মেয়েদের সঙ্গে আলাপ করত সে।ত’দন্তে জানা গেছে, স্থানীয় এক সিম কার্ড বিক্রেতার কাছ থেকে ওই

কিশোরীর মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে সুমলতা। ঘটনায় ভামসি কৃ’ষ্ণ নামের ওই সিম কার্ড বিক্রেতাকেও গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। ত’দন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, অ’ভিযুক্ত তরুণী বিবাহিত। স্ত্রীর অ’পকর্মের কথা জানতে পেরে আ’ত্মঘাতী হয়েছেন ওই তরুণীর তৃতীয় স্বামী। আপাতত পুলিশের হে’ফাজতেই রয়েছে ছ’দ্মবেশী সুমলতা।সূত্র: জিনিউজ