নিউটনের আবিষ্কারকে আইনস্টাইনের বলে চালিয়ে দিলেন ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী

মাথায় আপেল পড়ায় তা নিয়ে ভাবতে ভাবতে বিজ্ঞানী আইজ্যাক নিউটন মাধ্যাকর্ষণ শক্তি আবিষ্কার করেছিলেন। এ কাহিনী সবারই জানি। যুগ যুগ ধরে সে কথাই প্রাথমিকে পাঠদান করা হয়।

তবে এবার আইজাক নিউটনের সেই মাধ্যাকর্ষণ শক্তি আবিষ্কারের কৃতিত্ব কেড়ে নিলেন ভারতের এক মন্ত্রী। আর সেই কৃতিত্ব তুলে দিলেন মহাবিজ্ঞানী আইনস্টাইনের হাতে।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিল্লিতে বোর্ড অব ট্রেডের বৈঠকে এমনটিই বললেন মোদি সরকারের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়াল।

বৈঠকে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে পীযূষ বলেন, ‘আপনারা যদি ৫ হাজার কোটি ডলারের অর্থনীতি চান, তা হলে বছরে আর্থিক প্রবৃদ্ধির হার হতে হবে ১২ শতাংশ। এখন মাত্র ৬ শতাংশ নিয়ে সন্তুষ্ট থাকছি আমরা। কিন্তু এই অঙ্ক দিয়ে পরিকল্পনা ঠিক নয়। এই অঙ্কের সাহায্যে আইনস্টাইন মাধ্যাকর্ষণ সূত্র আবিষ্কার করেননি। আপনারা যদি শুধু অতীতের ফর্মুলার মধ্যে আবদ্ধ থাকেন, তা হলে পৃথিবীতে নতুন কিছু আবিষ্কার হবে না।’

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা আনন্দবাজার ও সংবাদ প্রতিদিন এমন খবর প্রকাশ হলে এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হাসি-ঠাট্টায় ফেটে পড়েন নেটিজেনরা।

অনেকেই বলেন, মন্ত্রী হয়তো দ্রুত কথা বলতে গিয়ে নিউটনের আবিষ্কারকে আইনস্টাইনের ঘাড়ে চাপিয়ে দিলেন।

কেউ কেউ বলছেন, ঠিকই তো। এতে ভুল কী? তিনি আমাদের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী। জাবেদা, নগদান, খতিয়ান রেখে তিনি বলবিদ্যা শেখাতে যাবেন কেন? নেটিজেনদের সঙ্গে মেতেছেন কয়েকজন কংগ্রেস নেতাও।

তাদের মধ্যে জয়রাম রমেশ কটাক্ষ করে বলেন, ‘আপনি ঠিকই বলেছেন মিস্টার পীযূষ গয়াল। মাধ্যাকর্ষণ শক্তি আবিষ্কার করার জন্য অঙ্ক কষতে হয়নি। কারণ নিউটন আগেই সেটি আবিষ্কার করে ফেলেছেন।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে হাসি-ঠাট্টা হওয়ায় এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে পীযূষ গয়াল বলেন, ‘হ্যাঁ, ভুল বলেছি। তবে একেবারে অমূলক কথা বলিনি। আমি অন্য পরিপ্রেক্ষিতে কথাটা বলেছিলাম। কিন্তু আমার অনেক বন্ধু সেই পরিপ্রেক্ষিতটা তুলে না ধরে ভুল ব্যাখ্যা করেছেন।’

প্রসঙ্গত মাধ্যাকর্ষণ তত্ত্ব নিউটনের আবিষ্কার। তবে আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতাবাদ তত্ত্বের সঙ্গে নিউটনের মাধ্যাকর্ষণ তত্ত্বের সম্পর্ক রয়েছে।