ধ.র্ষণের পর ভ’য়ঙ্ক’র যে প’রিকল্পনা ছিল ধ’র্ষক মজনুর

ভ’য়ঙ্ক’র প’রিকল্পনা ছিল ধ’র্ষক মজনুর- ধ.র্ষণের পর ঢাবি শিক্ষার্থীকে হ’ত্যার প’রিকল্পনা ছিল মজনুর। শ্বা’স’রোধ করে হ.ত্যার উদ্দেশ্যে তিনি বারবার গ.লা টিপে ধ’রেছেন। মে’য়েটি ধ’স্তাধ’স্তি করে পা’লিয়ে আসতে না পারলে ভি’ন্ন কিছু ঘ’টতে পারতো— বলছে র‌্যা’ব।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে কারওয়ান বাজারে র‌্যা’বের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। মজনুর বরাত দিয়ে র‌্যা’বের এই কর্মক’র্তা বলেন, ঘ’টনার দিন সন্ধ্যায় চিকিৎসা নি’তে ম’জনু কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে গিয়েছিলেন।

স’ন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে বের হয়ে হাসপাতালের গে’টের পাশে তিনি ঢা’বি শি’ক্ষার্থীকে দেখতে পান। এরপর একটু সামনে এগিয়ে ঝোঁ’পের পা’শে ওৎ পাতেন মজনু এবং চা’রদিকে নজর রাখেন কেউ আসছে কি না। পথে মে’য়েটি এ’কাই ছিলেন। তিনি ফু’টপাত ধ’রে হেঁটে শেওড়া এলাকার দিকে যাচ্ছিলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, নি.র্যাতনের শি’কার মে’য়েটির শ্বা’সজনিত স’মস্যা রয়েছে। যে কা’রণে মজনু যখন মে’য়েটির মু’খ এবং গ’লা চে.পে ধরে, তখন সে নি.স্তেজ হয়ে যায়। অ’চেতন হয়ে পড়ে। তার শ’রীরে কো’নো ধ’রনের চে.তনানা’শক ওষুধ বা মা.দক প্র’য়োগ করা হয়নি।

আম’রা জানতে পেরেছি, রাত ১০টার দিকে মে’য়েটি স’ম্বিত ফিরে পান। ধ.স্তাধ.স্তির এক পর্যায়ে তিনি ম’জনুরকে ফেলে দৌ’ড়ে পা’লান। রাস্তা পার হয়ে শে’ওড়া রে’লক্রসিং থেকে রি’কশা নিয়ে বা’ন্ধবীর বা’সায় যান। বান্ধ’বীরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান।

মেয়েটি পা’লিয়ে যাওয়ার পরে ম’জনুও খা’লি হাতে চলে যান। পরে ঘটনাস্থলে ফিরে এসে মো’বাইল ফোন, পাও’য়ার ব্যাংক ও ভ্যা’নিটি ব্যাগ নিয়ে যান বলে জানিয়েছেন মজনু। যে কা’রণে আলামতগুলো এলোমেলো হয়ে গেছে— বলেন র‌্যা’বের এই কর্মক’র্তা।

তিনি আরও বলেন, ধ.র্ষক এক’জনই ছিল। ম’জনু এবং ঢাবি শি’ক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে আম’রা নি’শ্চিত হয়েছি। মজনুকে আ’ট’ক করার পরে তার ছবি মে’য়েটিকে দেখানো হয়েছিল। তিনি শ*নাক্ত করার পরেই আ’সামিকে গ্রে’ফতার দেখানো হয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা গেছে, ম’জনুর বাড়ি নোয়াখালী জে’লার হাতিয়ায়। ১০ বছর আগে তিনি ঢাকায় আসেন। কয়েক বছর আগে তিনি বিয়ে করেছিলেন, স্ত্রী’ মা’রা গেছেন। ঢাকার কমলাপুর, তেজগাঁও, বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় থাকতেন তিনি। মজনু মা.দকা’সক্ত। ছি’নতাই তার মূল পে’শা। এর আগেও তিনি ভাসমান না’রী ভি’খারীকে একই জা’য়গায় নিয়ে গিয়ে ধ.র্ষণ করেছেন।