দুই ছাত্রীর গো’পনা’ঙ্গে পে’ন্সিল দিয়ে শি’ক্ষিকার নি’র্যাতন, সেই ভিডিও পা’ঠালেন প্রে’মিককে

এবার দুই ছাত্রীর গো’পনা’ঙ্গে পে’ন্সিল দিয়ে শি’ক্ষিকার নি’র্যাতন-দুই ছাত্রীকে যৌ’ন নি’র্যা’তনের দায়ে ১৯ বছর বয়সী এক শি’ক্ষিকা ও তার প্রে’মিককে গ্রে’প্তার করেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের পু’লিশ। তাদের বি’রুদ্ধে পকসো (প্রো’টেকশন অব চি’লড্রেন ফ্র’ম সে’ক্সুয়াল অ’ফেন্সেস)

আ’ইনে মা’মলা দা’য়ের করা হয়েছে। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ওই রাজ্যের মহু থা’নায়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কয়েকদিন আগে ওই শি’ক্ষিকার বাড়িতে প’ড়তে গি’য়েছিল ছয় বছরের ওই শিশু ও তার তিন বছরের বোন।

সেখানে শি’ক্ষিকা তাদের ন’গ্ন করে গো’পনা’ঙ্গে পে’ন্সিল ঢু’কিয়ে দেন। আবার সেই ঘ’টনার ভিডিও করেন তিনি নিজেই। তারপর সেই ভি’ডিও নি’জের প্রে’মিককে পাঠিয়ে দেন। টিউশন থেকে বা’ড়ি ফি’রে যৌ’না’ঙ্গে য’ন্ত্রণা হ’চ্ছে ব’লে জানায় তিন বছরের শিশুটি।

তখনই তাকে জি’জ্ঞাসাবাদ শুরু করে শি’শুটির মা। সেই সময়ই শি’ক্ষিকার পে’ন্সিল ঢো’কানোর কথা বলে দেয় সে। এরপর ছয় বছরের শি’শুটিও পুরো ঘট’নার কথা তার মাকে জানায়। বিষয়টি জানার পরই শি’ক্ষিকার বাড়িতে যান ওই শি’শুর প’রিবারের লোকজন।

অভিযুক্ত শি’ক্ষিকাকে মা’রধ’র করে পু’লিশের হাতে তুলে দেন। মহু থা’নার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অভয় নিমা বলেন, ওই শি’শুরা জানিয়েছ, টি’উশন দিদি তাদের গো’পনা’ঙ্গে পে’ন্সিল ঢু’কিয়ে দেন। তারা চিৎকার করার পর আবার পড়াতে শুরু করে দেন অ’ভিযুক্ত শি’ক্ষিকা। ওই শি’ক্ষিকাকে গ্রে’প্তার করে তার বি’রুদ্ধে প’কসো ধা’রায় মা’মলা দা’য়ের করা হয়েছে। ওই শি’ক্ষিকার প্রে’মিককেও গ্রে’প্তার করা হয়েছে।bdmorning