দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী শনিবার ঢাকায় আসছেন

তিনদিনের সরকারি সফরে ঢাকা আসছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নাক-ইয়ুন। শনিবার (১৩ জুলাই) ঢাকা পৌঁছাবেন তিনি। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রীর এ সফরের মধ্য দিয়ে সিউলের সাথে ঢাকার সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে মনে আশা করছে বাংলাদেশ।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নাক-ইয়ুনের ঢাকায় এটি প্রথম সফর। সফরকালে তিনি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বৈঠক করবেন। এছাড়া বাংলাদেশি এবং কোরিয়ান ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সাথেও বৈঠক করবেন তিনি।

সফরসূচি অনুযায়ী, শনিবার (১৩ জুলাই) বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী। এ দিন সন্ধ্যায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে কোরিয়ান কমিউনিটির সাথে ডিনার করবেন তিনি। সফরকালে এ হোটেলেই অবস্থান করবেন লি নাক-ইয়ুন।

পরদনি রোববার (১৪ জুলাই) সকালে জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন তিনি। সেখান থেকে সাভার ইপিজেডে ইয়াংহোন হাইটেক স্পোর্টসওয়্যার পরিদর্শন করবেন। এরপর কোরিয়ান প্রধানমন্ত্রী রাজধানীর মুগদাপাড়ায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যাডভান্সড নার্সিং অ্যাডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ পরিদর্শন করবেন।

এ দিন দুপুরেই কোরিয়ান ব্যবসায়ীদের সাথে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে মধ্যাহ্নভোজ সারবেন লি নাক-ইয়ুন। পরে দুপুর ২টায় বাংলাদেশের ব্যবসায়ী সংগঠন এফবিসিসিআই এবং বাংলাদেশ কোরিয়া বিজনেস ফোরাম আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তৃতা রাখবেন তিনি।

বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক এবং সন্ধ্যা ৬টায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী।

দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যকার আনুষ্ঠানিক বৈঠকে দু’দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়া প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে রোববার রাতে একটি ডিনার আয়োজন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (১৫ জুলাই) সকালে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর পরিদর্শন শেষে বেলা ১১টায় ঢাকা ছাড়বেন লি নাক-ইয়ুন।

বর্তমানে বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা হয়। তবে ১৯৭৫ সালের শুরুর দিকে ঢাকায় নিজেদের প্রথম দূতাবাস স্থাপন করে দক্ষিণ কোরিয়া।