ত্বকের যত্নে কমলার কিছু ব্যবহার

বাজারজুড়ে কমলার দেখা মিলছে, এর মানে হলো শীত এসে গেছে। ভিটামিন সিতে ভরপুর এই ফলটি আমার শরীরের জন্য বেশ উপকারী। কিন্তু এর বাইরেও এটি আরও অনেক কাজে লাগে। যেমন আমাদের ত্বক সুন্দর রাখতেও কমলার জুড়ি মেলা ভার। কমলার রস, খোসা, শাঁস, সব কিছুই আমাদের রূপচর্চার কাজে লাগতে পারে। চলুন জেনে নেয়া যাক-

ব্রণ কমায়: ব্রণের সমস্যা দূর করতে কমলার রসের সাইট্রিক অ্যাসিডকে কাজে লাগান। আঙুলে করে একটু কমলার রস নিয়ে ব্রণর উপরে ঘষে দিলেই শুকিয়ে যাবে ব্রণ, ত্বক হয়ে উঠবে পরিষ্কার, ঝকঝকে।

ত্বকের রং উজ্জ্বল করে: এক চা চামচ কমলার খোসার গুঁড়া নিন, তাতে মেশান দুধের সর বা টক দই। এই মিশ্রণটা মুখে ফেস প্যাকের মতো করে মেখে বিশ মিনিট রাখুন, তারপর ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন। মুখে চটজলদি ফর্সাভাব আনতে আর কালো দাগছোপ হালকা করতে এই ফেসপ্যাকটি দারুণ কাজ করে।

ত্বক সতেজ করে: মুখের খোলা রোমছিদ্র সংকুচিত করতে সাহায্য নিন কমলার রসের। মুখে খানিকটা কমলার রস মেখে দুই-তিন মিনিট রাখুন, তারপর ঠান্ডা পানিতে চেপে চেপে ধুয়ে নিন। ত্বক মুহূর্তেই সতেজ হয়ে উঠবে।

মুখের মৃত কোষ দূর করে: কমলার খোসা রোদে শুকিয়ে গ্রাইন্ডারে দিয়ে একটু মোটা দানার পাউডার করে নিন। পরিমাণমতো এই পাউডার নিয়ে তার সঙ্গে খানিকটা মুলতানি মাটি আর মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। সারা মুখে এই মিশ্রণটা লাগিয়ে আলতো হাতে স্ক্রাব করুন। এরপর ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নিলেই ঝকঝকে হয়ে উঠবে মুখ।

বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না: কমলায় প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডান্ট রয়েছে যা আপনার ত্বককে ফ্রি র্যাডিকালের হামলা থেকে রক্ষা করে, কাছে ঘেঁষতে দেয় না বলিরেখা ও বয়সের দাগ। কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে গুঁড়া করে নিন, তারপর পানি বা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করুন।