চলতি সংসদ অধিবেশন ১১ মার্চ শেষ হচ্ছে

চলতি একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন মঙ্গলবার (১১ মার্চ) পর্যন্ত চলবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংসদের কার্য উপদেষ্টা কমিটি। তবে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রয়োজন মনে করলে অধিবেশনের মেয়াদ বাড়াতে পারবেন।

আজ সোমবার (৪ মার্চ) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির প্রথম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কমিটির সভাপতি স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। কমিটি সদস্য এবং সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি বৈঠকে অংশ নেন।

কমিটির সদস্য রওশন এরশাদ এমপি, আমির হোসেন আমু এমপি, তোফায়েল আহমেদ এমপি, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, হাসানুল হক ইনু এমপি, মো: ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, আনিসুল হক এমপি,আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি এবং নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি বৈঠকে অংশ নেন।

সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান বৈঠকের কার্যপত্র উপস্থাপন করেন। সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে জানানো হয়, সংবিধানর ৯৩(২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী অধিবেশনের প্রথম বৈঠকে ৫টি অধ্যাদেশ উপস্থাপিত হয়েছে।অধ্যাদেশ সমূহ প্রতিস্থাপনকারী বিলগুলো ইতোমধ্যে সংসদে পাস হয়েছে এবং রাষ্ট্রপতি ২৮ ফেব্রুয়ারিতে বিলগুলোতে সম্মতি দিয়েছেন।

এ পর্যন্ত প্রাপ্ত মোট ৮টি (প্রতিস্থাপনকারী ৫টি বিলসহ) সরকারি বিলের মধ্যে ৩টি বিল উত্থাপনের অপেক্ষায় রয়েছে। চলতি অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য বেসরকারী সদস্যদের কাছ থেকে ১টি বিল পাওয়া গেছে।

বৈঠকে জানানো হয়, ৩০ জানুয়ারিতে শুরু হওয়া এই অধিবেশনে ৪ মার্চ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর জন্য ১১৪টি ও মন্ত্রীদের জন্য ২৩২৫টিসহ মোট ২৪৩৯টি প্রশ্ন পড়েছে। সিদ্ধান্ত প্রস্তাব (বিধি ১৩১) ২৫০টি, মনোযোগ আকর্শনের নোটিশ (বিধি ৭১) ৩২১টি ও সংক্ষিপ্ত আলোচনার (বিধি ৬৮) ৩টি নোটিশ পাওয়া গেছে।

৩ মার্চ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর মোট ১১৫ জন সংসদ সদস্য ৩৩ ঘন্টা ৪৭ মিনিট আলোচনা করেছেন।