চমক দিয়ে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণা

ইতিহাস হাতছানি দিচ্ছিল বাংলাদেশকে। ভারতের মাটিতে এখন পযর্ন্ত কোনো দল তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিততে পারেনি। আর বাংলাদেশের জন্য ভারতের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার কীর্তি গড়ার সুযোগ তো ছিলই।

এখন সেসবই অতীত। কারণ, কোনোটাই করতে পারেনি বাংলাদেশ। উল্টো বাংলাদেশের বিপক্ষে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন ভারতীয় বোলার দীপক চাহার। এদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ রানে তুলে নিয়েছেন ৬ উইকেট। যা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসের বেস্ট বোলিং ফিগার।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে নাগপুরে রোববার (১০ নভেম্বর) শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান সংগ্রহ করেছিল ভারত। জবাবে মোহম্মদ নাঈমের ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটিতে ভর করেও সব উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রানে শেষ হয় বাংলাদেশের ইনিংস।

কুড়ি ওভারের ক্রিকেট শেষ করেই দুই দল নামবে ধৈর্য্য ও টেম্পারমেন্টের পরীক্ষা দিতে ক্রিকেটের অভিজাত ফরম্যাটে। আগামী ১৪ নভেম্বর ইন্দোরের বিধর্বা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে হবে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টটি সেই ম্যাচ তথা সিরিজ খেলার উদ্দেশ্যে শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা ত্যাগ করার আগে

নিজের ফেসবুক পেজে ইমরুল কায়েস লেখেন, অনেক দিন পর আবার দেশের জার্সি পরে খেলবো ইনশা-আল্লাহ। আমি আমার বেস্ট ট্রাই করবো ভালো কিছু দেবার জন্য,প্লিজ সবাই আমার এবং আমাদের টিম এর জন্য দোয়া করবেন.। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডে বেশ কিছু পরিবর্তন রয়েছে।

মুমিনুল হকের নেতৃত্বে গড়া টেস্ট স্কোয়াডের ৮ জনই নেই টি-টোয়েন্টি দলে। তারাই শুক্রবার যাবেন দুই ম্যাচের টেস্ট খেলতে। মুমিনুলসহ শুক্রবার ভারতগামী বিমানে উঠবেন সাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, সাঈফ হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাইম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী এবং এবাদত হোসেন।

ভারত সফরে বাংলাদেশের টেস্ট স্কোয়াডঃ সাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, মুমিনল হক সৌরভ, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিঠুন, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আলআমিন হোসেন, এবাদত হোসেন।