শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, বাংলাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে ১২ই সেপ্টেম্বর থেকে

প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশের সব স্কুল কলেজ আগামী ১২ই সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি শুক্রবার তার নির্বাচনী এলাকায় এক স্কুলের উদ্বোধন করতে গিয়ে এ ঘোষণা দেন।

তিনি পরে সাংবাদিকদের বলেন, “সব ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১২ই সেপ্টেম্বর থেকেই খুলে দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।”

কোভিড সংক্রান্ত পরামর্শক কমিটির সাথে গত রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টদের সাথে এক বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান। তিনি বলেন, কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় কমিটি ওই বৈঠকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেছেন যে এ সিদ্ধান্তের ফলে মূলত প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক ও মাদ্রাসাসহ সব ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই খুলে দেয়া হবে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ১৫ই অক্টোবর খুলে দেয়ার বিষয়ে আগেই সিদ্ধান্ত হলেও এখন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন যে শিক্ষার্থীদের এক ডোজ টিকা দেয়া এবং কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো চাইলে নিজেরা নির্ধারিত সময়ের আগেই খুলে দেয়ার ব্যবস্থা করতে পারবে।

গত বছর মার্চে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে বা সরাসরি ক্লাস বন্ধ রাখা হয়েছে।

দীর্ঘ সময় স্কুল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কারণে শিক্ষার্থীদের যে ক্ষতি হচ্ছে, সে নিয়ে প্রশ্ন ক্রমেই জোরালো হচ্ছিণ।

তবে গতকাল স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ঘোষণা করেছিলেন যে চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় এবং নার্সিং ইনস্টিটিউটগুলোয় আগামী ১৩ই সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষার্থীদের সশরীরে উপস্থিতির মাধ্যম্যে ক্লাশ শুরু হবে।