গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি চলছেই, হতে পারে ৫ ওভারে ম্যাচ, রাত কয়টার মধ্যে ম্যাচ শুরু না হলে যা হবে

ভারী বর্ষণ বা মুষলধারে বৃষ্টি বলতে যা বোঝায়, তা হচ্ছে না। তারপরও শেরে বাংলায় নির্ধারিত সময়ে টস হয়নি। পিচও ভারি কভারে ঢাকা। কারণ, মিরপুর হোম অফ ক্রিকেটের আশাপাশে প্রায় ঘন্টা খানেক ধরেই টিপ টিপ বৃষ্টি পড়ছে। কেউ এটাকে ইলশে গুঁড়িও বলেন। বৃষ্টির তীব্রতা ও প্রচন্ডতা নেই। তাতে কি? এক দুই ফোঁটা করে হলেও অনবরত পড়ছে।

এই টানা টিপ টিপ বৃষ্টির কারণেই বাংলাদেশ আর আফগানিস্তানের তিন জাতি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফাইনাল বিঘ্নিত। বিলম্বিত। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় শুরুর কথা থাকলেও সেটা হয়নি। নির্ধারিত সময়ের ৩০ মিনিট আগে টস হয়। সেটাও বৃষ্টির কারণে হয়নি। এখন বৃষ্টি না থামলে টস হবারও সম্ভাবনা নেই। বৃষ্টি কখন থামবে? এ মুহূর্তে সেটাই প্রশ্ন। সবাই প্রকৃতির আনুকূল্য চাচ্ছেন। কারণ ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটা ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হলে টুর্নামেন্টের জৌলসটাই নষ্ট হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, ১৩ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ আর জিম্বাবুয়ের প্রথম ম্যাচেও ঠিক প্রায় একই অবস্থা হয়েছিল। সেদিনও বৃষ্টি ভুগিয়েছিল। পরে নির্ধারিত সময়ের দুই ঘন্টা পর রাত ৮ টার দিকে খেলা শুরু হয়। এবং ২০ ওভারের ম্যাচ ২ ওভার কমে ১৮ ওভারে ছোট হয়েছিল।

আজও সে সম্ভাবনা আছে। আর আয়োজক-ব্যবস্থাপক এবং খেলা পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সবাই কায়মনে চাচ্ছেন, যাতে অন্তত ৫ ওভার করে খেলা হয়। বিসিবির অফিসিয়াল স্কোরার হাবিবউল্লাহ জানিয়েছেন, যখনই খেলা শুরু হোক, আর যে কয় ওভারের ম্যাচই হোক না কেন; রাত ১০ টা ৪০ মিনিট হলো খেলা শেষ করার সর্বশেষ সময়।

এখন ৫ ওভার করে হলেও সর্বমোট ৫৪ মিনিট খেলার সময় দরকার। তাই ধরে নেয়া হচ্ছে যে করেই হোক অন্তত ৫ ওভার করে হলেও রাত ৯ টা ৪০ মিনিটের মধ্যে খেলা শুরু করতেই হবে। তারও অন্তত মিনিট ১৫ আগে হবে টস। অর্থাৎ রাত ৯ টার মধ্যে হয়তো শেষ বারের মধ্যে মাঠ ও পিচ পরিদর্শন শেষে খেলা শুরুর সময় নির্ধারণ করা হবে।

তবে আশার কথা হলো, সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার মধ্যে খেলা শুরু করা সম্ভব হলে আর এক ওভারও কাটা যাবে না। তারপর যত দেরি হবে, তত ওভার কমবে। এমন এক ফাইনালে বাগড়া দিয়ে বসেছে বৃষ্টি। মিরপুরের শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এখনও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।

তাই নির্ধারিত সময়ে (সন্ধ্যা ৬টায়) টস হয়নি। রাত ৯টা ৪০ মিনিটের আগ পর্যন্ত খেলা শুরু করা না গেলে ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হবে।