ওদের গায়ের দুর্গন্ধে আমার অস্বস্তি হয়, ঘেন্না লাগেঃ রানু

রানাঘাট স্টেশনে গান গেয়ে ভিক্ষা করে যার জীবন চলতো সেই রানু এখন ভারতের সবচেয়ে আলোচিত শিল্পী। একটি ভিডিওর বদৌলতে বদলে গেছে তার জীবন। রানুর গান শুনে মুগ্ধ কোটি কোটি মানুষ। রানাঘাট থেকে মুম্বাইয়ে পাড়ি দিয়েছেন রানু। প্রথমে জনপ্রিয় একটি টেলিভিশন শোয়ে হাজির হন তিনি। এরপর সেখান থেকে সোজা হিমেশ রেশমিয়ার স্টুডিওতে।

হিমেশের সুর ও সঙ্গীতে একটি গানে কণ্ঠও দিয়েছেন। সেই গানের শিরোনাম ‘তেরি মেরি’। এরই মধ্যে গানটির দুটি লাইন ভাইরাল হয়ে গেছে। পরে হিমেশের আরও দুটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। এখন রানু আর সাধারণভাবে চলে ফিরে বেড়াতে পারছেন না আগের মতো। তাকে কাছে পেলেই ভক্তরা ঘিরে ধরছে। তার সঙ্গে সেলফি তুলছে। তাকে জড়িয়ে ধরছে। ভক্তদের এই ভালোবাসা পরিপ্রেক্ষিতে মন্তব্য করেই এবার সমালোচিত হলেন রানু।

সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রানু জানাচ্ছেন, তাকে দেখে অনেকেই ছুটে এসে জড়িয়ে ধরেন। আর সেই ভক্তদের মধ্যে অনেকেরই গায়ে নাকি দুর্গন্ধ বের হয়। এতে নাকি বেশ সমস্যা হয় রানুর। রানু বলেন, ‘ওরা যখন আমায় এসে জড়িয়ে ধরে, ওদের গায়ের দুর্গন্ধে আমার অস্বস্তি হয়। ঘেন্না লাগে।’

এমন মন্তব্য করায় ভক্তরা রানুর ওপর বিরক্তি প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ বলছেন, খ্যাতি পেয়ে রানু নিজের শিকড় ভুলে গিয়েছেন। তার প্রথম যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছিল, তাতেই দেখা গিয়েছিল তার পোশাক। আর সেই রানুই খ্যাতি পেয়ে কীসব মন্তব্য করছেন ভাবতেই পারছেন না ভক্তরা!
কিছু দিন আগে ভবঘুরে রাণু পথে-ঘাটে গান গেয়ে বেড়াতেন। সেখান থেকে সোজা পাড়ি দিয়েছেন মুম্বাই। বলিউড সিনেমা হ্যাপি হার্ডি এন্ড হীর ছবিতে শোনা যাবে রাণুর একাধিক গান।

ইতোমধ্যেই হিন্দি ছবিতে গানের রেকর্ডিংয়ের জন্য বেশ কয়েকবার মুম্বাই পাড়ি দিতে হয়েছে রাণুকে। এই কলকাতা-মুম্বাই সফর করতে করতে বেশ বিরক্ত হয়ে গিয়েছেন গায়িকা। কাজেই মুম্বাইতেই পাকাপাকিভাবে থাকার বাসস্থান খুঁজছেন তিনি। সম্প্রতি ভারতীয গণমাধ্যম রাণু মণ্ডল জানান, বারবার ফ্লাইটে করে মুম্বাই যাওয়া তাঁর কাছে বিরক্তিকর। কাজেই মুম্বাইতেই নিজের বাড়ি বা ফ্ল্যাট বানাতে চান।

সম্প্রতি স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে লতার গান গেয়ে রাতারাতি স্টার হয়ে যান তিনি। এরপর থেকে রাণু কী করছেন, কী পরছেন, কী গাইছেন…তাঁর প্রতিটি গতিবিধিই খবরের শীর্ষে! এদিকে কোথাও গান শেখেননি রাণু। সব গান শুনে শুনে মুখস্থ, তাও হুবহু লতার গলা। মেয়েরা বিয়ের পর মাকে একা রেখে চলে গিয়েছিল। সেই রাণু মন্ডলের গাওয়া ‘এক পেয়ার কা নাগমা’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর খুলে গেল ভাগ্য।

তারকা রাণুর জীবনে অনেক পরিবর্তন আসে। একের পর এক গানেরও অফার পেতে শুরু করেন। ইতোমধ্যেই কলকাতার এক পুজোর থিম সং গেয়েছেন। সুত্রঃ অনলাইন