এবার ফিক্সিংয়ে ধড়া খেলেন মিথুন, গ্রেফতার ৮

শিরোনামের নাম দেখে আঁতকে উঠবেন না। অভিযুক্ত খেলোয়াড় বাংলাদেশের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন নন। তিনি ভারতীয় পেসার অভিমান্যু মিথুন। যাকে কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগে (কেপিএল) ফিক্সিংয়ের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে।

ভারতের রাজ্য ক্রিকেটের স্থানীয় টুর্নামেন্ট কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরের গায়ে বেশ ভালোভাবেই বসেছে ফিক্সিংয়ের কালো দাগ। যার সবশেষ শিকার হয়তো একসময় ভারতের জাতীয় দলে খেলা ৩০ বছর বয়সী ডানহাতি পেসার মিথুন।

কেপিএলে ফিক্সিংয়ের অভিযোগে এরই মধ্যে অনেক ক্রিকেটার ও সংগঠককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সেন্ট্রাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ (সিসিবি)। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এবার অভিযোগ উঠেছে মিথুনের বিরুদ্ধে। টুর্নামেন্টে শিবামোজ্ঞা লায়নসের অধিনায়ক ছিলেন তিনি।

মিথুনের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে ভারতীয় পুলিশের যুগ্ম কমিশনার সন্দ্বীপ পাতিল বলেন, হ্যাঁ, আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিসিবিতে তলব করেছি। সবশেষ কেপিএলের ব্যাপারে বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতেই মূলত মিথুনকে ডাকা হচ্ছে।

ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ নিশ্চিত করেছে বর্তমানে সৈয়দ মুশতাক আলি ট্রফি খেলতে কর্ণাটক দলের সঙ্গেই সুরাটে অবস্থান করছেন মিথুন। তবে তার সঙ্গে যোগাযোগ করার সকল চেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে। কেপিএলের প্রথমবার মালনার গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে খেলেছিলেন মিথুন। এরপর তিনি পাড়ি জমান বিজাপুর বুলসে। আর সবশেষ আসরে শিবামোজ্ঞা লায়নসের অধিনায়কত্ব করেন এ পেসার।

এদিকে কেপিএলে ফিক্সিংয়ের অভিযোগে গত জুলাইয়ে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দল বেলাগাভি প্যান্থার্সের মালিক আলি আশফাক থারাসহ ৮ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে সিসিবি। বুধবার আশফাক থারা জামিন আবেদন নাকচ করে দিয়েছে কর্ণাটকের হাইকোর্ট।jagonews24